বাংলা রচনা সমগ্র

বাংলাদেশের সোনালী আঁশ /বাংলাদেশের প্রধান অর্থকরী ফসল /বাংলাদেশের স্বর্ণসূত্র রচনা

ভূমিকা :

প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি আমাদের মাতৃভূমি বাংলাদেশ দারিদ্র্যপীড়িত আমাদের এদেশে তেমন কোন প্রাকৃতিক সম্পদেরপ্রাচুর্য নেই , নেই কোনো সচ্ছলতার আলাদীন প্রদীপ তবে আছে সৃষ্টিকর্তার শ্রেষ্ঠ আশীর্বাদ উর্বর মাটি উর্বরতায় অতুলনীয় মাটিতে জন্মানো সবুজ শস্যমালার মধ্যে শ্রেষ্ঠ হলো পাট পাট বাংলাদেশের প্রধান অর্থকরী ফসল প্রতি বছর বাংলাদেশবিদেশে পাট রপ্তানি করে প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা লাভ করে বলে পাটকে বলা হয় সোনালি আঁশ

উৎপত্তিস্থান :

পৃথিবীর সিংহ ভাগ পাট বাংলাদেশে জন্মে বাংলাদেশের মাটি আবহাওয়া পাট চাষের জন্য খুবই উপযোগী প্রতি বছরএদেশে প্রায় ২০ লক্ষ একর জমিতে পাট চাষ করা হয় উৎপাদিত পাটের পরিমাণ প্রায় কোটি মণ বাংলাদেশের ময়মনসিংহ, জামালপুর , টাঙ্গাইল , ঢাকা , কুমিল্লা , ফরিদপুর , পাবনা রাজশাহী জেলায় প্রচুর পাট জন্মে

বর্ণনা :

পাট এক ধরনের সরু লম্বা আকারের গাছের আঁশ প্রতিটি পাট গাছ প্রায় হাত লম্বা হয় গাছটির কোনো ডালপালা থাকেনা তবে ফুল আসার সময় কিছু ছোট ডাল গাছের মাথার দিকে ছড়ায় গাছের মাথায় কিছু পাতা থাকে পাটের পাতারকিনারা খাঁজকাটা নরম নিচের দিকের পাতা গাছ বাড়ার সাথে সাথে ঝরে পড়ে এবং পাতা মাটিতে পচে প্রচুর জৈব পদার্থযোগ করে পাট গাছের রং সবুজ পাট গাছের ভেতরে থাকে একটি নরম কাঠি , পাটকাঠি জড়িয়ে যে আঁশ থাকে তা পানিতেপচিয়ে বের করলেই পাটে রূপান্তরিত হয় বাংলাদেশের পাট উন্নতমানের।

চাষ প্রণালি :

পাট চাষের জমি উত্তমরূপে চাষ করতে হয় উঁচু জমিতে ফারুনচৈত্র মাসে দেশি পাটের বীজ প্রতি হেক্টরে ১০ কেজি বপনকরা হয় নিচু জমিতে চৈত্রবৈশাখ মাসে পাটের বীজ প্রতি হেক্টরে কেজি ছিটানো হয় বীজ থেকে চারা প্রজননেরকিছুদিন পর নিড়ানি দিয়ে আগাছা উঠানো হয় প্রয়োজনে পাতলাকরণ খালি জায়গায় পূরণ করতে হয় বর্ষাকালে পানিপেলে পাট গাছ বেড়ে ওঠে আষাঢ়শ্রাবণ মাসে দেশি পাট ভাদ্র মাসে পাট কাটা হয় দেশি পাট হেক্টরে . থেকে . টন তোষা পাট হেক্টরে থেকে . টন হয়

পাটের ব্যবহার :

উৎকৃষ্ট পাটের আঁশগুলো যেমন দীর্ঘ , তেমনি সূক্ষ্ম , চিকন রেশমের মতো সমুজ্জ্বল পাট থেকে বিবিধ শিল্পদ্রব্য প্রস্তুত হয় জার্মানি , ইংল্যান্ড প্রভৃতি দেশে পাট দিয়ে কাপড় তৈরি হয় আমাদের দেশেও পাট দ্বারা নানা রকমের দ্রব্য প্রস্তুত করা হয়ে থাকে পাটের ওপর ভিত্তি করেই এদেশের পাট শিল্প , কাগজ শিল্প কাপড় শিল্প গড়ে উঠেছে পাট দ্বারা তৈরি পারটেক্স , চেয়ার , টেবিল , গেইট , বাড়িঘর ডেকোরেশন বিভিন্ন প্রকার খেলনা তৈরি হচ্ছে তাছাড়া পাট থেকে দড়ি , কাছি , চট , থলে , কাপের্ট , কম্বল প্রভৃতি দ্রব্য প্রস্তুত হয়ে থাকে দৈনন্দিন জীবনে পাটের উপযোগিতা অপরিসীম

পাট ব্যবসা :

পাটের ব্যবসা খুবই লাভজনক পাট উৎপাদন ব্যবসা করে দেশের অনেক লোক জীবিকা নির্বাহ করে বৈদেশিক মুদ্রাঅর্জনে পাটই একমাত্র বাণিজ্যিক পণ্য

পাট শিল্পের সঙ্কট :

বর্তমানে পাটের বিকল্প কৃত্রিম আঁশ আবিষ্কার হওয়াতে বহির্বিশ্বে পাটের চাহিদা হ্রাস পেতে শুরু করেছে যার ফলে আমাদের পাটশিল্প সঙ্কটজনক অবস্থায় পতিত হচ্ছে সেই সাথে পাটের রপ্তানি কমে যাওয়ায় কৃষকরা তাদের ন্যায্য মূল্য পাচ্ছে না উপরন্তুআমাদের জাতীয় অর্থনীতির গতি হারাতে শুরু করেছে একই সাথে আমাদের কৃষকরাও পাট উৎপাদনে উৎসাহ পাচ্ছে না এমতাবস্থায় আমাদের জাতীয় অর্থনীতিকে গতিশীল করার লক্ষ্যে পাট শিল্পকে বর্তমান সঙ্কট থেকে উদ্ধার করতে হবে পাটেরবহুমুখী ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে সেই সাথে আন্তর্জাতিক বাজারে টিকে থাকতে হলে আমাদের পাট পাটজাত দ্রব্যের মানউন্নয়ন করতে হবে পাটের বর্তমান অবস্থা বর্তমানে নাইলন পলিথিন পাটের বাজার দখল করেছে তাই দেশে বহু পাটকলইতোমধ্যে বন্ধ হয়েছে এবং বাকিগুলো বন্ধের পথে

সম্ভাবনা :

বর্তমানে বি.সি.আই.সি , ৪০ দিন বয়সের সবুজ পাট থেকে কাগজ তৈরির মণ্ড আবিষ্কার করেছেন মণ্ড বাঁশ , আখের ছোবড়া গাছ থেকে তৈরিকৃত মণ্ডের চেয়ে উন্নতমানের এবং দামেও সস্তা

পরিবেশ দূষণ :

পাট পচে পানিতে নানান ধরনের রোগ বালাইয়ের সৃষ্টি হয় পানি পান করায় ম্যালেরিয়া , টাইফয়েড উদরাময় রোগের ঝুঁকিবেড়ে যায় ফলে গ্রামের স্বাভাবিক পরিবেশ নষ্ট হয় মানুষের স্বাস্থ্যহানি ঘটে।

উপসংহার :

পাট এদেশের প্রধান অর্থকরী ফসল শিল্পক্ষেত্রে পাটের গুরুত্ব অপরিসীম বিভিন্ন বিচিত্র ক্ষেত্রে যেমন এর ব্যবহার , তেমনিবহু ক্ষেত্রে এর উপযোগিতাও অনেক বেশি দেশবিদেশে অনেক গবেষণায় পাটের বিকল্প কৃত্রিম আঁশ বের করে নানা কাজেলাগানোর চেষ্টা করা হয়েছে

কিন্তু উপযোগিতা মূল্যের দিক থেকে সেসব কৃত্রিম আঁশ পাটের সমকক্ষতা লাভ করতে পারেনি পটি এখনো বিশ্বে অপরাজেয় রয়ে গেছে কিন্তু আমাদের পাট চাষিরা পাটের ন্যায্য মূল্য পায় না ফলে সোনালি আঁশ পাটিবর্তমানে কৃষকের গলার ফাস হয়ে দাঁড়িয়েছে এজন্য সরকারকে পাট চাষিদের দিকে সুনজর দেয়া একান্ত অপরিহার্য

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button