বাংলা রচনা সমগ্র

শিক্ষা বিস্তারে কম্পিউটার / কম্পিউটার শিক্ষার প্রয়োজনীয়তা রচনা

ভূমিকা :

শিক্ষা মানুষের মৌলিক অধিকার সভ্যতার ক্রমবিকাশের সাথে সাথে শিক্ষার মানও উন্নত হয়েছে প্রযুক্তিগত শিক্ষায় এসেছেব্যাপক পরিবর্তন নতুন নতুন আবিষ্কার পৃথিবীকে উন্নতির পথে নিয়ে যেতে সহযোগিতা করেছে জীবনে সুখস্বাক্সলবিধানকল্পে মানুষ একসময় বিজ্ঞানচর্চা শুরু করেছিল বিজ্ঞানের হাত ধরে মানুষ সেদিন পেয়েছিল জীবনের নিরাপত্তারপ্রতিশ্রুতি , পেয়েছিল জীবনের সুখ স্বাচ্ছন্দ্যের আশ্বাস আধুনিক বিজ্ঞানের উচ্চ প্রযুক্তি সম্বলিত যে আবিষ্কারটি পৃথিবীতেঅতীতের সমস্ত রেকর্ড ভেঙে একুশ শতককে সবচেয়ে গতিশীল করেছে , উন্মোচন করেছে অনন্ত সম্ভাবনার দ্বাৰু বিস্ময়কর সেআবিষ্কারটি হলো কম্পিউটার মানবজীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে আশীর্বাদস্বরূপ কাজ করছে কম্পিউটার আজকের দিনের মানুষহয়ে পড়েছে কম্পিউটার নির্ভর বর্তমানে শিক্ষাক্ষেত্রে কম্পিউটারের অবদান অনস্বীকার্য।

কম্পিউটার ব্যবহারের ব্যাপকতা :

কম্পিউটার আবিষ্কার খুব বেশি দিনের না হলেও এর রয়েছে বহুমুখী ব্যবহার কম্পিউটার মানুষের জীবন সভ্যতার সর্বত্রআলোড়ন সৃষ্টি করেছে বিজ্ঞানের অজস্র আবিষ্কারের সাথে কম্পিউটার সম্পৃক্ত থেকে এর ব্যবহারের ব্যাপকতা সম্পর্কেমানুষকে তাক লাগিয়ে দিতে সক্ষম হয়েছে আধুনিক প্রযুক্তিবিদ্যার নির্ভরযোগ্য বাহন কম্পিউটার ক্ষুদ্রতম গৃহকোণ থেকে শুরুকরে সুবিশাল অফিস কক্ষ পর্যন্ত নিজের কর্মতৎপরতা ছড়িয়ে রেখেছে দৈনন্দিন জীবনে বিচিত্র কাজকর্মের সঙ্গে যেমন এটাজড়িত , তেমনি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য সংরক্ষণে , সর্বাধুনিক জ্ঞানচর্চায় , বিনোদনমূলক কর্মসূচিতে , অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডেএককথায় জীবনের সকল কাজে কম্পিউটার এত বেশি অপরিহার্য যে , একে ছাড়া বর্তমান জীবন কল্পনাও করা যায় না কম্পিউটারশিক্ষার মাধ্যমে জীবনের বিভিন্ন ক্ষেত্রে তা প্রয়োগের ব্যবস্থা করা যায় শিক্ষা প্রতিটি সচেতন মানুষের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

শিক্ষাক্ষেত্রে কম্পিউটার :

আধুনিক শিক্ষা পদ্ধতির অনন্য বাহন হলো কম্পিউটার আজকের উন্নত বিশ্বে কম্পিউটারের ব্যবহার ছাড়া শিক্ষাব্যবস্থা কল্পনাকরা যায় না এর মাধ্যমে অতি অল্প সময়ে প্রয়োজনীয় তথ্য সংগ্রহ করা এবং জ্ঞানবিজ্ঞানের রাজ্যে বিচরণ করা সহজ হয়েপড়েছে প্রকাশনা শিল্পে বিপ্লব ঘটিয়েছে কম্পিউটার যার ফলে শিক্ষা জ্ঞানচর্চার অন্যতম উপকরণ বই সঠিক সময়েআমাদের হাতে পৌছে যাচ্ছে বইয়ের বিষয়াবলি এখন কম্পিউটারের ডিস্কে জমা রাখা যাচ্ছে কীবোর্ডের বোতাম টিপলেইএখন বিশ্বের সমস্ত জ্ঞানভাণ্ডার আমাদের সামনে মনিটরের পর্দায় ভেসে উঠছে কম্পিউটারের আশীর্বাদে যেকোনো বিষয়এখন হাতের কাছে অবস্থান করে মানুষের জ্ঞানভাণ্ডারকে সমৃদ্ধ করছে এটি যেমন গ্রন্থাগারের ভূমিকা পালন করছে , তেমনিঅভিজ্ঞ শিক্ষকের ইন্টারনেটের মাধ্যমে আমরা আমাদের যেকোনো শিক্ষণীয় বিষয়কে চোখের সামনে পাচ্ছি পৃথিবীর সমস্তগ্রন্থাগারগুলো যেন এখন আমাদের ঘরে অবস্থান করছে

শিক্ষার মানোন্নয়নে কম্পিউটার :

শিক্ষার মানোন্নয়নে কম্পিউটারের ভূমিকা এখন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ পূর্বের গতানুগতিক শিক্ষা পদ্ধতির বদলে এখনবিজ্ঞানসম্মত শিক্ষা গ্রহণ সম্ভব হয়েছে কম্পিউটারের বদৌলতে শিক্ষার্থীরা পূর্বে যে বিষয়টি নিয়ে ঘণ্টার পর ঘণ্টা অধ্যয়নকরত , বর্তমানে কম্পিউটারের মাধ্যমে ব্যবহারিক জ্ঞান প্রয়োগর ফলে সে বিষয়টি অতি অল্প সময়ে আয়ত্ত করা সম্ভব হচ্ছে বর্তমানে শিক্ষাব্যবস্থার বিভিন্ন শাখা ; যেমনচিকিৎসা , প্রকৌশল , রসায়ন , পদার্থ , গণিত , দর্শন ইত্যাদির মানোন্নয়নেকম্পিউটার বিশেষ ভূমিকা রাখছে

বাংলাদেশের শিক্ষায় কম্পিউটার ব্যবহার :

বিশ্বের উন্নত দেশসমূহে শিক্ষার সর্বস্তরে কম্পিউটারের ব্যবহার শুরু হলেও বাংলাদেশে তা এখনো ব্যাপকভাবে সম্ভব হয়নি আমাদের দেশে কেবল উচ্চশিক্ষার ক্ষেত্রে কম্পিউটার ব্যবহৃত হচ্ছে প্রাথমিক নিম্ন মাধ্যমিক স্তরে কম্পিউটারের ব্যবহার নেইবললেই চলে মাধ্যমিক স্তরে শিক্ষার্থীদের জন্যে জাতীয় পাঠ্যপুস্তক বোর্ড ‘ – এর পাঠ্যসূচিতে কম্পিউটার বিষয়টি অন্তর্ভুক্তথাকলেও তা একেবারেই প্রাথমিক ধারণা বিষয়ে সীমাবদ্ধ , তাও আবার যোগ্য শিক্ষকের অভাবে শিক্ষার্থীরা সঠিকভাবেশিক্ষালাভ করতে পারছে না তার পরেও এটা যে একটা মহৎ উদ্যোগ তা বলার অপেক্ষা রাখে না

বাংলাদেশের শিক্ষাক্ষেত্রে কম্পিউটার :

আশির দশকে বাংলাদেশে বাণিজ্যিকভাবে কম্পিউটারের ব্যবহার হলেও আনুষ্ঠানিক প্রাতিষ্ঠানিকভাবে কম্পিউটার শিক্ষা শুরুহয় নব্বইএর দশকে বর্তমানে বাংলাদেশে কম্পিউটার শিক্ষা দ্রুত ব্যাপক হারে বিকাশ ঘটছে কিন্তু কম্পিউটার শিক্ষাঅত্যন্ত ব্যয়বহুল হওয়ায় শিক্ষার্থীর পরিমাণ এখনো খুবই সীমিত বাংলাদেশে প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়সহ অনেকগুলোবেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কম্পিউটার ইনস্টিটিউট থেকে কম্পিউটার শিক্ষা দেয়া হয় এখান থেকে যারা শিক্ষালাভ করেছেতাদের অনেকেই আন্তর্জাতিক মানের সফটওয়্যার তৈরি করতে সক্ষম হয়েছে বর্তমানে সিলেটে অবস্থিত শাহজালাল বিজ্ঞান প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ব্যাপকভাবে কম্পিউটার শিক্ষা শুরু হয়েছে তবে অত্যন্ত পরিতাপের বিষয় হলো এই যে , আমাদের দেশেরবিজ্ঞান মেধাবী শিক্ষার্থীরা তাদের শিক্ষাজীবন শেষ করে আরও উন্নত শিক্ষা গ্রহণের জন্য বিদেশে পাড়ি জমিয়ে আর দেশেফিরে আসছে না এর ফলে আমাদের দেশের কম্পিউটার শিক্ষার ওপর যথেষ্ট ক্ষতিকর প্রভাব পড়ছে

কম্পিউটার শিক্ষাব্যবস্থা :

কম্পিউটারের গুরুত্ব প্রয়োজনীয়তা বিবেচনা করে এতে বিপুল সংখ্যক জনশক্তি নিয়োজিত করা দরকার আর এই প্রয়োজনমিটানোর জন্য কম্পিউটার শিক্ষাকে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে দিতে হবে বর্তমানে বিশ্বজুড়ে কম্পিউটার শিক্ষার ব্যবস্থা করা হয়েছে আমাদের দেশেও শিক্ষাব্যবস্থার বিভিন্ন স্তরে কম্পিউটার শিক্ষা চালু করা হয়েছে এখন মাধ্যমিক উচ্চ মাধ্যমিক স্তরে কম্পিউটারশিক্ষার বাধ্যতামূলক পাঠ্যসূচি চালু করা হয়েছে উচ্চতর পর্যায়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে কম্পিউটারের উপর ডিগ্রি প্রদান করা হচ্ছে এছাড়া বিভিন্ন কারিগরি শিক্ষাকেন্দ্রে কম্পিউটার শিক্ষা চালু করা হয়েছে কম্পিউটার শিক্ষাকে উৎসাহিত করার জন্য সরকারবিভিন্ন ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে ইতোমধ্যে ফেনীতে একটি কম্পিউটার ইনস্টিটিউট স্থাপন করা হয়েছে শিক্ষার্থীদের মধ্যেওকম্পিউটার শিক্ষা গ্রহণের ব্যাপক আগ্রহ পরিলক্ষিত হচ্ছে

উপসংহার :

মানবজীবনের সকল ক্ষেত্রে যেখানে কম্পিউটারের ব্যবহার অত্যাবশ্যক , সেখানে শিক্ষাক্ষেত্রে কম্পিউটার ব্যবহারের কথা বলারঅপেক্ষা রাখে না কম্পিউটারের অবদানে জ্ঞানবিজ্ঞানের যেমন বিকাশ ঘটছে , তেমনি গতিশীলতা এসেছে জীবনের প্রবাহে কম্পিউটার প্রায় প্রত্যেক শিক্ষিত মানুষের দৈনন্দিন কর্মকাণ্ডের নিত্যসঙ্গী হয়ে উঠেছে তাই কম্পিউটার শিক্ষার ব্যবস্থা এবং এরওপর নির্ভরশীলতা বৃদ্ধি করে জাতিকে উন্নতির সর্বোচ্চ শিখরে নিয়ে যাওয়ার উদ্যোগ গ্রহণ করা আবশ্যক।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button