বাংলা রচনা সমগ্র

সুন্দরবন বাংলা রচনা

ভূমিকা :

সুন্দরবন পৃথিবীর একক বৃহত্তম ম্যানগ্রোভ বন বনের ৬২ শতাংশ বাংলাদেশের খুলনা জেলায় এবং বাকি ৩৮ শতাংশপশ্চিমবঙ্গের চব্বিশপরগনা জেলায় অবস্থিত প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে সুন্দরবন অতুলনীয় এবং জীববৈচিত্র্যে অসাধারণ সুন্দরবনএকটি একক ইকো সিস্টেম এটি শুধু বাংলাদেশ নয় , বিশ্বর প্রকৃতিপ্রেমিকদের কাছেও একটি আকর্ষণীয় স্থান

সুন্দরবনের আয়তন অবস্থান :

সুন্দরবন ২১ ডিগ্রি ৩০ মিনিট উত্তর অক্ষাংশ থেকে ৮৯ ডিগ্রি শূন্য মিনিট বা ৮৯ ডিগ্রি পূর্ব দ্রাঘিমাংশে অবস্থিত আজ থেকেপ্রায় ২০০ বছর পূর্বে সুন্দরবন ১৬,৭০০ বর্গ কি.মি. এলাকাব্যাপী বিস্তৃত ছিল কিন্তু বর্তমানে এর আয়তন সংকুচিত হয়ে গেছে বর্তমানে বনভূমির আয়তন ৬০১৭ বর্গকিলোমিটার সমস্ত সুন্দরবন দুটি বন বিভাগের অন্তর্ভুক্ত এখানে চারটি প্রশাসনিকরেঞ্জ হয়েছে , রয়েছে ১৬ টি ফরেস্ট স্টেশন

সুন্দরবনের ভূতত্ত্ব , মৃত্তিকা জলবায়ু :

সুন্দরবনে ভূভাগ হিমালয় পর্বতের ভূমিক্ষয়জনিত জমা পলি থেকে সৃষ্টি ভূবিজ্ঞানীরা এখানকার ভূমি গঠন বিন্যাসে দক্ষিণপূর্ব দিকে সামান্য ঢালের সন্ধান পেয়েছেন কূপখনন গবেষণা থেকে দেখা যায় , সুন্দরবনের পশ্চিম এলাকা তুলনামূলক স্থির তবে দক্ষিণপূর্ব দিকের একটি অংশ ক্রমেই নিমুখী হচ্ছে বাংলাদেশের অভ্যন্তরের তুলনায় সুন্দর বনের মাটি একটি আলাদাধরনের জোয়ার ভাটার কারণে এখানকার পানিতে জলাবদ্ধতা অবণাক্ততা বেশি এখানকার মাটি পলিযুক্ত দোআশ সুন্দরবনের বার্ষিক গড় তাপমাত্রা সর্বোচ্চ ৩১ ডিগ্রি এবং সর্বনিম্ন ২১ ডিগ্রি

সুন্দরবনের উদ্ভিদ :

সুন্দরবনের উদ্ভিদকুল বৈচিত্র্যময় এখানকার অধিকাংশ গাছপালা ম্যানগ্রোভ ধরনের এখানে রয়েছে বৃক্ষ , লতাগুল্ম , ঘাস , পরগাছা ইত্যাদি উদ্ভিদ উদ্ভিদবিজ্ঞানী ডি . প্রেইন সুন্দরবনে ৩৩৫ প্রজাতির উদ্ভিদ আছে বলে উল্লেখ করেছেন পৃথিবীতে পর্যন্ত সন্ধানপ্রাপ্ত ৫০ টি ম্যানগ্রোভ উদ্ভিদের মধ্যে সুন্দরবনেই আছে টি সুন্দরবনের উদ্ভিদের মধ্যে রয়েছে সুন্দরী , গরান , গেওয়া , কেওড়া , ওড়া পশুর , ধুন্দুল , বাইন প্রভৃতি এছাড়া সুন্দরবনের প্রায় সবখানেই জন্মে গোলপাতা

সুন্দরবনের প্রাণী :

বিচিত্র সব প্রাণীর বাস সুন্দরবনে সুন্দরবনে রয়েছে প্রায় ৫০ প্রজাতির স্তন্যপায়ী , ৫০ প্রজাতির সরীসৃপ , ৩২০ প্রজাতির পাখি , প্রজাতির উভয়চর প্রাণী এবং ৪০০ প্রজাতির মাছ সুন্দরবনের স্তন্যপায়ী প্রাণীদের মধ্যে রয়েল বেঙ্গল টাইগার পৃথিবী বিখ্যাত এছাড়া রয়েছে চিত্রা মায়া হরিণ , বানর , বনবিড়াল , লিওপার্ড , শজারু , উদ এবং বন্য শূকর এখানে রয়েছে বিচিত্র সবপাখি বক , সারস , হাড়গিলা , কাদাখোঁজা , লেনজা , হাড়িটি এখনকার নদীনালা গাছপালার মাঝে বসবাস করে সমুদ্র উপকূলে দেখা যায়গাংচিল , জল কবুতর , টার্ন ইত্যাদি এছাড়া চিল , ইগল , শকুন , মাছরাঙা , কাঠঠোকরা , ভগীরথ , পেঁচা , মধুপায়ী , বুলবুলি শালিক , ফিঙ্গে , ঘুঘু , রেনে বৌ , হাঁড়িচাচা , ফুলঝুরি , মুনিয়া , টুনটুনি , দোয়েল , বাবুই , প্রভৃতি পাখিসুন্দরবনে বাস করে সুন্দরবনের সরীসৃপদের মধ্যে রয়েছে কুমির , সাপ , টিকটিকি জাতীয় সরীসৃপ ইত্যাদি অর্থনৈতিক ক্ষেত্রেসুন্দরবনের অবস্থান : সুন্দরবনে প্রাপ্ত কাঠ জ্বালানি কাঠকয়লা হিসেবে ব্যবহূত হয় এছাড়া ম্যানগ্রোভের ফল গোখাদ্যহিসেবে ব্যবহূত হয় গােলপাতাব শুকিয়ে ঘরের চাল বেড়া তৈরিতে ব্যবহৃত হয় সুন্দরবনে যে শামুকঝিনুক পাওয়া যায় , তা খাবার চুনের ভালো উৎস সুন্দরবনের মধুর উপর নির্ভর করে একশ্রেণির মানুষ তাদের জীবিকা নির্বাহ করে দেশে বিক্রিরপাশাপাশি মধু বিদেশেও রপ্তানি হয় মৎস্যজীবীরা সুন্দরবন থেকে মাছ ধরে তা স্থানীয় বাজারসহ বিভিন্ন স্থানে বিক্রি করে সুন্দরবনের বনজ সম্পদকে কেন্দ্র করে কয়েকটি শিল্পকারখানা গড়ে উঠেছে এর মধ্যে খুলনা নিউজপ্রিন্ট হার্ডবোর্ড মিলসউল্লেখযোগ্য

বর্তমানে সুন্দরবনের অবস্থা :

সুন্দবনের বনজ সম্পদের প্রতি আকৃষ্ট হয়ে মানুষ অহরহ প্রবেশ করছে এখানে ফলে এর ভারসাম্য নষ্ট হচ্ছে এছাড়ালবণাক্ততা বৃদ্ধি পেয়ে ম্যানগ্রোভও ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে রয়েল বেঙ্গল টাইগারের শেষ আবাসস্থল সুন্দরবন চোরা শিকারিদেরহামলায় বাঘের সখ্যো কমতে কমতে ৪৫০ এসে দাড়িয়েছে সম্প্রতিক আইলায় সুন্দরবন ব্যাপক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে

উপসংহার :

সুন্দরবন আমাদের ঐতিহ্য দেশের দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের আর্থসামাজিক অবস্থানকে উন্নত করতে সুন্দর বনের ভূমিকাঅনস্বীকার্য পৃথিবীর বৃহত্তম ম্যানগ্রোভ ফরেস্ট সুন্দরবন তাই আমাদের উচিত সুন্দরবন এর প্রাকৃতির সম্পদ রক্ষায় নিজনিজ অবস্থান থেকে উদ্যোগী হওয়া

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button