Others

৫ টি গুরুত্বপূর্ণ ব্যায়াম ও তার উপকারিতা(5 important exercises and its benefits)

আমাদের দেশে অনেক লোক শরীর সতেজ রাখতে অনুশীলন, যোগব্যায়াম করে থাকে  তবে আজকেরযুবকরা তাদের কাজ নিয়ে এতটাই ব্যস্ত যে তারা  অনুশীলন করার সময় পায় না, যেই কারণে অনেক রোগের ঝুঁকি বেড়েযায়। মানুষের শরীর বাঁচিয়ে রাখতে যেমন  খাদ্য যেমন প্রয়োজন তেমনিভাবে প্রতিদিন শরীরচর্চা করাও শরীরের জন্যপ্রয়োজনীয়। অনুশীলনের মাধ্যমে মানুষের মানসিক এবং শারীরিক সুস্থতা বজায় থাকে।

প্রিয় বন্ধুরা আজকে আমরা আপনাদের সামনে তুলে ধরব গুরুত্বপূর্ণ 5 টি ব্যায়াম এর উপকারিতা যা হয়তোবা আপনারজীবনকেও পরিবর্তন করে দিতে পারে:

1. বৃক্ষাসন

বৃক্ষাসন ব্যায়ামটি যেভাবে করবেন: প্রথমত,আপনাকে সোজা হয়ে দুই পায়ের পাতা একসঙ্গে রেখে দাঁড়াতে হবে। এরপর আপনারডান পা উপরের দিকে তুলতে হবে। ডান পা তুলে পায়ের পাতাকে বাঁ ঊরুর ভেতরের দিকে লাগান।

যদি আপনি এরকম করতে না পারেন। তবে ডান পায়ের পাতা বাঁ পায়ের হাঁটুতে লাগানোর চেষ্টা করুন। এই অবস্থায় আপনিসামনের দিকে তাকিয়ে থাকার চেষ্টা করবেন। এভাবে এক পায়ে থাকার পর অন্য পায়েও দাঁড়িয়ে থাকার চেষ্টা করুন।

এর ফলে আপনার মনের চঞ্চলতা দূর হবে, স্নায়ুর বিকাশ ঘটবে।যে কোনো কিছুর প্রতি গভীর মনোযোগ দিতে পারবেন।

. হস্ত উত্তানসন

হস্ত উত্তানসন ব্যায়ামটি যেভাবে করবেন:

প্রথমত, আপনাকে পায়ের পাতা দুটো এক করে সোজা হয়ে দাঁড়তে হবে। এরপর লম্বা করে শ্বাস নিন। এরপর হাত দুটোকে টানটান করে মাথার ওপরে এমনভাবে তুলুন যেন আপনার বাহু আপনার কানের সঙ্গে লেগে থাকে।

এবার পা দুটো সোজা করে কোমর থেকে আস্তে আস্তে পেছনে সাধ্যমতো বাঁকানোর চেষ্টা করুন। মনে রাখবেন, আপনার যতটুকুসাধ্য, ঠিক ততটুকু বাঁকাবেন।  সাধ্যের বাইরে কোনো কিছু করার চেষ্টা করবেন না।শ্বাসপ্রশ্বাস দ্রুত নয় ধীরে ধীরে নিয়ন্ত্রণেরমাধ্যমে নেবেন ছাড়বেন।

এই ব্যায়ামের উপকারিতাগুলো আমাদের জন্য খুবই গুরত্বপূর্ণ।

হস্ত উত্তানসন ব্যায়ামটি করার ফলে যে উপকারগুলো পাবেন। হজমশক্তি বাড়াবে, মেরুদণ্ড নমনীয় হবে, অক্সিজেন নেওয়ারক্ষমতা বাড়বে, শরীরে স্ফূর্তি কর্মচঞ্চলতা আসবে। বর্তমান সময়ে অনেকেরই হজম শক্তি কম। যাদের হজম শক্তি কম তারা এইব্যায়ামটি করতে পারেন।

. অর্ধচন্দ্রাসন

অর্ধচন্দ্রাসন ব্যায়ামটি যেভাবে করবেন:

প্রথমত, আপনাকে পায়ের পাতা দুটো পেছনে টান টান করে বা আঙুল ভেতরে ভাঁজ করে একসঙ্গে রাখতে হবে। এরপর হাঁটুতেভর করে দাঁড়াবেন। অবশ্যই হাত দুটোকে বুকের ওপর রাখবেন। শ্বাস ভেতরে টেনে গ্রীবা মাথাকে পেছনের দিকে ঝাঁকিয়েকোমরকে ওপরের দিকে টান টান করে দিতে হবে। তবে খুব মনোযোগের সঙ্গে দেহের ভারসাম্য রাখবেন। ব্যায়াম শেষে আসনথেকে ওঠার সময় শ্বাস ছাড়তে ছাড়তে উঠবেন। তবে  ব্যায়ামটি করার সময় আস্তে আস্তে করবেন। দ্রুত করার চেষ্টা করবেন না।

অর্ধচন্দ্রাসন ব্যায়ামটি শ্বাসতন্ত্রের জন্য খুবই উপকারী। যদি আপনি ফুসফুসের প্রকোষ্ঠগুলোকে সক্রিয় রাখতে চান  তাহলে এইব্যায়ামটি আপনার জন্য। তা ছাড়াও যাদের হাঁপানি রয়েছে তারা এই ব্যায়ামটি করতে পারেন।

পাশাপাশি এটি থাইরয়েড গ্রন্থির সমস্যা দূর করে এবং কোমরের চর্বি কমায়।

. তির্যক তাড়াসন

তির্যক তাড়াসন ব্যায়ামটি যেভাবে করবেন:

প্রথমত, আপনার দুই পা দুই দিকে যতটুকু পারেন ছড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করুন। তবেখেয়াল রাখবেন আপনার পায়ের পাতা যেনো সামনের দিকে থাকে। দ্বিতীয়ত, বুক ভরে শ্বাস নিয়ে দুই পা ওপরে তুলুন এবংহাতের আঙুলগুলো পরস্পরের মধ্যে সংযুক্ত করুন। এবার শ্বাস ছাড়তে ছাড়তে যতটুকু পারেন, ডান দিকে কাত হয়ে যাবার চেষ্টাকরুন।কাত হওয়ার সময় যেন দুই হাত দুই পা একই সমন্তরালে থাকে। আসন থেকে ওঠার সময় শ্বাস নিতে নিতে উঠবেন।

এবার শ্বাস ছাড়তে ছাড়তে হাত বন্ধ অবস্থা থেকে ছাড়িয়ে দেন।

যাদের কোমরের পাশে  চর্বি রয়েছে। তাদের চর্বি কমানোর জন্য তির্যক তাড়াসন ব্যায়ামটি খুবই উপকারী। এটি করার ফলেকিডনি, লিভার, স্পিনে রক্তসঞ্চালন বেড়ে যায়।যার ফলে শরীর সুস্থ থাকে। পাশাপাশি,কোমর চিকন করতে সাহায্য করে মেরুদণ্ডকে প্রসারিত করে যার ফলে শরীরে শিথিলতা আসে।

. বীরভদ্রাসন

বীরভদ্রাসন ব্যায়ামটি যেভাবে করবেন: প্রথমে সোজা হয়ে দাঁড়িয়ে পা দুটো দুপাশে সাধ্যমতো ছড়িয়ে দিন।

পায়ের পাতা দুটো সামনের দিকে  সমান্তরালে রাখবেন এরপর ডান পায়ের পাতা ডান দিকে বাঁকা করুন। হাত দুটো কাঁধেরসমান্তরালে টান টান করে তুলে রাখবেন। মাথাটা ঘুরিয়ে শ্বাস ছাড়তে ছাড়তে ডান দিকে তাকাবেন।চেষ্টা করবেন  ডান হাত একলাইন বরাবর রাখতে। এবার আস্তে আস্তে ডান হাঁটু মুড়ে ডান দিকে ঝুঁকে যান। তবে খেঁয়াল রাখবেন আপনার কোমর যেন নাঝোঁকে। দেহ অবশ্যই সোজা রাখবেন। দুই পায়ে ভারসাম্য বজায় রাখবেন। আসন থেকে ওঠার সময় প্রথমে ডান হাঁটু সোজা করেতারপর ডান পায়ের পাতা সোজা করে উঠার চেষ্টা করুন।

এই ব্যায়ামগুলো আপনি সকালে করতে পারেন। শরীর চর্চার জন্য সকালের সময়টি বেস্ট টাইম।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button